রাজনীতিসর্বশেষ

হাইকোর্টকে রাজনৈতিক মঞ্চ বানিয়েছে আওয়ামী লীগ: ডা. শাহাদাত

আওয়ামী লীগ সরকার হাইকোর্টকে রাজনৈতিক মঞ্চ বানিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ জাতীয় নির্বাচনে ভোট চুরির পাশাপাশি সুপ্রিম কোর্টের নির্বাচনেও ভোট চুরি করে। আওয়ামী লীগ দেশের সব গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করেছে। তারা এখন বিচার বিভাগ ধ্বংস করতে শপথবদ্ধ রাজনীতি শুরু করেছে।
শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নগরীর কাজীর দেউরী নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয়তাবাদী কর আইনজীবী ফোরামের উদ্যোগে চট্টগ্রাম কর আইনজীবী সমিতির নবনির্বাচিত নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।
ডা. শাহাদাত বলেন, বাংলাদেশের মানুষের রাজনৈতিক ও সাংবিধানিক অধিকার কেড়ে নিয়ে বর্তমানে একটি অবৈধ সরকার অবৈধভাবে দেশ পরিচালনা করছে। সাধারণ মানুষ কোর্টগুলোতে এখন নাগরিক সুরক্ষা পাওয়ার বদলে অন্যায় ও অবিচারের শিকার হচ্ছে।
তিনি বলেন, সারাদেশের মানুষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পক্ষে বলেছে, কিন্তু আওয়ামী লীগ এই বিধান বাতিল করে দিয়েছে। উচ্চ আদালতকে রাজনৈতিক মঞ্চ বানিয়েছে আওয়ামী লীগ। সরকার বিচার বিভাগকে শেষ করে দিয়েছে।
তিনি কর আইনজীবী সমিতির নবনির্বাচিত নেতাদের শুভেচ্ছা জানিয়ে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আইনজীবী ঐক্য পরিষদের মনোনীত নাজিম, রাজ্জাক, কাশেম পরিষদের প্রার্থীদের বিজয়ী করার আহ্বান জানান।
চট্টগ্রাম বিভাগীয় জাতীয়তাবাদী কর আইনজীবী ফোরামের সভাপতি আলহাজ্ব মো. মুছার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এতেসামুল আলম চৌধুরী পাপ্পুর পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন- চট্টগ্রাম কর আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. ওমর ফারুক।
আরও বক্তব্য রাখেন- কর আইনজীবী সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি মো. আবু তাহের, সাধারণ সম্পাদক বাকাউল্লা চৌধুরী ইরান, সাবেক সহ-সভাপতি শেখ এম শাজাহান ঠাকুর, যুগ্ম সম্পাদক চৌধুরী খালেদ বিন সরওয়ার জনি, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক মো. আলমগীর, অ্যাড. ইমাম উদ্দিন, মহানগর জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দলের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, কর আইনজীবী সমিতির কোষাধ্যক্ষ সঞ্জয় আচার্য্য, সাংস্কৃতিক সম্পাদক রিংকু দত্ত, লাইব্রেরি ও তথ্যপ্রযুক্তি সম্পাদক কুতুব উদ্দিন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. ইয়াসিন, কার্যনির্বাহী সদস্য দিদারুল আলম রনি, মো. ইউসুফ, ছায়েদুল হক মজুমদার, যুবনেতা আসাদুর রহমান টিপু ও ছাত্রনেতা সালাউদ্দিন কাদের আসাদ প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *