সর্বশেষসারাদেশ

খাবারের খোঁজে ভারতের বানর বাংলাদেশে, দিশেহারা সীমান্তের কৃষকরা

খাবারের খোঁজে ভারত থেকে হাজার হাজার বানর বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকায় এসে নষ্ট করছে কৃষকের ক্ষেত ও ফলের বাগান। এতে চরম বিপাকে পড়েছে সীমান্তের কৃষকসহ সাধারণ মানুষ।
কয়েক মাস ধরেই এমন ঘটনা ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার মুন্সিরহাট ইউনিয়নের পৈথারা, ফকিরের খিল, কামাল্লা, বদরপুর ও জামমুড়ার ভারত সীমান্তবর্তী এলাকার।
স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, ভারতের অন্য রাজ্যে বানরের উৎপাত বেড়ে যাওয়ায়, ভারতের সীমান্তরক্ষী বিএসএফ কয়েক হাজার বানর এনে ত্রিপুরা রাজ্যের বনাঞ্চলে অবমুক্ত করে। সেই বানরগুলোই বনাঞ্চলে খাবার না পেয়ে দলে দলে কাঁটাতার পেরিয়ে ছুটে আসছে বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী এলাকার লোকালয়ে। হানা দিচ্ছে ফসলের ক্ষেত ও ফলের বাগানে। প্রতিদিন বানরগুলো দুই থেকে তিনটি দলে বিভক্ত হয়ে দিনে দুবার সময় করে হানা দেয় কৃষকের আম, কাঁঠাল, সবজির বাগানসহ শস্যক্ষেতে। ফলে এসব এলাকার প্রান্তিক কৃষকরা বানরের হাত থেকে রক্ষা করতে পারছে না আলু, বেগুন, বরবটি, সিমসহ বিভিন্ন সবজির ক্ষেত। বাড়িতে ঢুকে খেয়ে ফেলছে রান্না করা খাবার। সীমান্তবর্তী এলাকার এ প্রান্তিক কৃষকরা বানরের যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে বন বিভাগের সহযোগিতা কামনা করেছেন।
স্থানীয় কৃষক আবুল খায়ের বলেন, ঝাঁকে ঝাঁকে বানর এসে ফসলের জমিসহ বিভিন্ন সবজির বাগান নষ্ট করছে। বানরগুলোকে তাড়ালেও যেতে চায় না। ফসল রক্ষায় দিনের বেশিরভাগ সময় আমাদের মাঠে পাহারা দিতে হচ্ছে।
ফকিরের খিল গ্রামের আবদুর রশিদ জানান, শুধু ফসলের ক্ষেত নয়, মাঝে মাঝে বানরগুলো বাড়িতে প্রবেশ করে বিভিন্ন জিনিসপত্র নিয়ে যায়, রান্না করা খাবার খেয়ে ফেলে। বানরের এমন উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী।
সীমান্তের একটি ফল বাগানের মালিক আবু তাহের জাগো নিউজকে বলেন, বানরের ঝাঁক ফল বাগানে এসে পড়ে মুহুর্তে কাঁচাপাকা ফল তছনছ করে ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে। এতে কৃষকদের বড় ধরনের লোকসান গুনতে হবে। বন বিভাগ দ্রুত কোনো উদ্যোগ নিলে বানরের উৎপাত ও ক্ষয়ক্ষতি কিছুটা থেকে রক্ষা পাবে কৃষকরা।
মুন্সিরহাট ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শাহাদাত হোসেন জানান, কয়েকমাস ধরে ভারত থেকে দল বেঁধে এসে বানর ফল ও ফসল নষ্ট করায় অতিষ্ঠ স্থানীয় বাসিন্দারা। ফসল রক্ষায় বানর তাড়ানোর জন্য বন বিভাগের দ্রুত উদ্যোগ নেওয়া প্রয়োজন।
জানতে চাইলে সামাজিক বন বিভাগ ফেনীর রেঞ্জ কর্মকর্তা বাবুল চন্দ্র ভৌমিক বলেন, বনাঞ্চলে খাবার সংকটের কারণে মূলত বানরগুলো লোকালয়ে নেমে এসেছে। বানর নিরীহ প্রাণী, এদের মারা বা আঘাত করা যাবে না। আগুন জ্বালিয়ে ধোঁয়া দেখিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে বানরগুলোকে তাড়াতে হবে। এ বিষয়ে কৃষকদের সচেতন করতে সীমান্তবর্তী এলাকায় বন বিভাগের লোকবল পাঠানো হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *