ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে শিক্ষিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ

খাগড়াছড়ির গুইমারায় স্ত্রী হত্যাসহ বিভিন্ন অপরাধে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা সাগর চৌধুরীর বিরুদ্ধে এবার এক ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী শিক্ষিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে থানায়। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) রাতে গুইমারা থানায় ভুক্তভোগী ওই শিক্ষিকা সাগরকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

 

সাগর চৌধুরী গুইমারা উপজেলার দার্জিলিং পাড়া এলাকার মৃত নিরঞ্জন চৌধুরীর ছেলে এবং উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি। ভিকটিম ইউনিসেফ ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের পরিচালিত স্থানীয় একটি পাড়া কেন্দ্রের (প্রাক প্রাথমিক শিক্ষা কেন্দ্র) শিক্ষিকা।

অভিযোগে জানা যায়, স্ত্রী হত্যা মামলায় দীর্ঘদিন জেল খেটে জামিনে আসার পর সাগর চৌধুরী ওই শিক্ষিকাকে পাড়া কেন্দ্রে যাওয়া আসার সময় প্রেমের প্রস্তাবসহ বিভিন্নভাবে কুপ্রস্তাব দিতেন। কিন্তু তিনি এতে রাজি না হওয়ায় রাস্তাঘাটে ইভটিজিংসহ নানাভাবে উত্যক্ত করতো সাগর। এক পর্যায়ে শিক্ষিকার কন্যাকে অপহরণসহ নানা হুমকি দিয়ে টাকা দাবি করতো সে। এভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে শিক্ষিকার কাছ থেকে বিভিন্ন সময় প্রায় এক লক্ষ ৪৬ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় সাগর।

সর্বশেষ গত রবিবার (১৮ এপ্রিল) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে স্থানীয় জামাদার পাড়ায় পাড়া কেন্দ্রের মিটিং শেষে সহকর্মীদের সাথে বাড়ি ফেরার পথে কংক্য মাষ্টাররের ব্রিজ এলাকায় পৌঁছলে সাগর তাকে রাস্তায় আটকিয়ে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এ প্রস্তাব প্রত্যাখান করলে ক্ষুব্ধ হয়ে শিক্ষিকাকে চুলের মুঠি ধরে টেনে হেঁছড়ে সাগর তার বাড়িতে নিয়ে যায়।

সেখানে জোরপূর্বক ধর্ষণ করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ার পর সে লোহার রড দিয়ে শিক্ষিকাকে বেদম মারধর করে। এ সময় তার আর্তচিৎকারে আশ পাশের লোকজন বাড়ির চারপাশে জড়ো হলেও সাগরের ভয়ে কেউ এগিয়ে আসেনি। এক পর্যায়ে ওই শিক্ষিকা বিবস্ত্র অবস্থায় সাগরের ঘর থেকে দৌঁড়ে ব্রিজ এলাকায় এলে লোকজন এগিয়ে আসে। খবর পেয়ে তার এক ছোট ভাই ছুটে এসে বোনকে উদ্ধার করে মাটিরাংগা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২০এপ্রিল) রাতে ভিকটিম বাদি হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে গুইমারা থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) এস আই আল আমিন জানান, আসামিকে গ্রেফতার করতে পুলিশ তৎপরতা চালাচ্ছে। পুলিশ জানায়, ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে স্ত্রী মাধবী রায় চৌধুরী ওরফে পিংকিকে মারধর এবং গলাটিপে হত্যার অভিযোগে থানায় হত্যা মামলা হয় সাগর চৌধুরীর বিরুদ্ধে। ঐ মামলায় পুলিশ তার নামে আদালতে চার্জশীটও দেয়। তিনি এ মামলায় গ্রেফতার হয়ে দীর্ঘদিন জেলে ছিলেন বলে জানায় পুলিশ। এছাড়া, গতবছর গুইমারায় আলোচিত প্রবাসীর স্ত্রী ও কন্যাকে ধর্ষণের মামলায়ও সাগর চৌধুরীকে আসামি করা হয়।

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »