আমরা কঠিন লড়াই করতে চাই: সুজন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ধুঁকতে থাকা সময়টাকে পেছনে ফেলার আরেকটি সুযোগ পাচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। হারের বৃত্ত ভেঙে জয়ে ফেরার সুযোগ মিলছে শ্রীলঙ্কা সফরে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্যে গতকাল দুপুরে চার্টার্ড ফ্লাইটে দেশ ছেড়েছে বাংলাদেশ টেস্ট দল। তিন ঘণ্টার ফ্লাইট শেষে বিকেলেই কলম্বো পৌঁছে গেছে ৪১ জনের বহর।

মাঠের ক্রিকেটে নাজুক অবস্থানের কারণেই শ্রীলঙ্কা সফরে হাঁকডাক নেই বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের কণ্ঠে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে লঙ্কানদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের আশাবাদ ব্যক্ত করে গতকাল দেশ ছেড়েছেন টিম লিডার ও বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন। জয়ের জন্য সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে মুমিনুলদের। সুজনের বিশ্বাস, জেতার সামর্থ্য আছে বাংলাদেশ দলের।

গতকাল বিমানে চড়ার আগে বোর্ড পরিচালক সুজন বলেছেন, ‘আমাদের সব ক্রিকেটারের মধ্যেই সামর্থ্য আছে। এই জিনিসটা মাথায় নিয়েই খেলতে হবে ইতিবাচক, আক্রমণাত্মক ক্রিকেট। আমি সবসময় ইতিবাচক ক্রিকেট খেলার কথা বলি, মানসিকতা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। যে মানসিকতা আমি দেখেছি দুই বছর আগে। সেরকমটা দেখতে চাই, মাঠে লড়াই করবে, ফল কী হবে পরে দেখা যাবে। কিন্তু আমরা লড়াই করতে চাই।’

দল হিসেবে আত্মবিশ্বাস খুব ভালো অবস্থানে নেই। শেষ সিরিজে ঘরের মাঠেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে মুমিনুলরা হেরেছিল ২-০ তে। সুজনের চোখে, শ্রীলঙ্কায় জেতার পূর্বশর্ত দলগতভাবে নিজেদের সেরা ক্রিকেট খেলা। সাবেক এ অধিনায়ক গতকাল বলেছেন, ‘অবশ্যই আমরা চাই জিততে। আমরা ওখানে সেরা ক্রিকেট খেলতে চাই। পাঁচ দিনের খেলা এ কারণে সেশন বাই সেশন ধরে এগোতে হবে। চট্টগ্রাম টেস্টে (উইন্ডিজের বিপক্ষে) আমরা চার দিন ডমিনেট করেও হেরে গেছি, এমনটা করতে চাই না। লম্বা সময় মনোযোগ ধরে রাখতে চাই।’

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভালো করার সামর্থ্য আছে বাংলাদেশ দলের। ব্যক্তিগত সাফল্যের পথ মাড়িয়ে দলগত পারফরম্যান্স দেখতে চান সুজন। কন্ডিশন সম্পর্কে জানাতে গিয়ে গতকাল তিনি বলেছেন, ‘কন্ডিশনটা আমরা জানি ওখানে এখন গরম থাকে বেশি। উইকেটটা ভালো থাকে। শ্রীলঙ্কার কন্ডিশনের শ্রীলঙ্কা বেশ শক্ত প্রতিপক্ষ, কিন্তু আমরা বিশ্বাস করি আমরা স্কিলের দিক থেকে পিছিয়ে নেই।

শুরুতে তিন দিনের রুম কোয়ারেন্টাইনে থাকবে বাংলাদেশ দল। কোয়ারেন্টাইনে থেকেই আগামী ১৫-১৬ এপ্রিল অনুশীলনের সুযোগ পাবেন ক্রিকেটাররা। পরে কাতুনায়েকেতে ১৭-১৮ এপ্রিল নিজেদের মধ্যে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবেন মুমিনুল-তামিমরা। প্রস্তুতি ম্যাচ শেষে ঘোষণা করা হবে দুই টেস্টের জন্য বাংলাদেশের চূড়ান্ত দল। ক্যান্ডির পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে দুই দিন অনুশীলন শেষে ২১ এপ্রিল প্রথম টেস্ট খেলতে নামবে মুমিনুল বাহিনী। একই ভেন্যুতে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট মাঠে গড়াবে ২৯ এপ্রিল। দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর আগেই চূড়ান্ত দলে সুযোগ না পাওয়া ক্রিকেটাররা দেশে ফিরবেন। ৪ মে দেশে ফিরবে বাংলাদেশ দল।

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »