চীন বিরোধীতার মধ্যেই দ. কেরিয়ায় ‘চায়নাটাউন’ নির্মাণ

পর্যটকদের আকর্ষণ করার উদ্দেশে দক্ষিণ কোরিয়ার গ্যাংওয়ন প্রদেশের চুনচাঁওতে একটি ‘চায়নাটাউন’ নির্মাণ করা হচ্ছে। কিন্তু সেটির নির্মাণ কাজ বন্ধের দাবি জানিয়েছেন দেশটির নাগরিকরা। এ নিয়ে সম্প্রতি চেওং ওয়া দা সরকারি ওয়েবসাইটে একটি অনলাইন পিটিশিন দায়ের করা হয়েছে। সেখানে ইতিমধ্যে স্বাক্ষর করেছেন ৪ লাখ ১৫ হাজারের বেশি মানুষ।

ইংরেজি দৈনিক কোরিয়ান টাইমসের একটি প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট জানিয়েছে, পিটিশনে আবেদনকারীরা লিখেছেন, নাগরিকরা বুঝতে পারছেন না কেনো কেরিয়ান সরকার চীন থেকে সংস্কৃতির অভিজ্ঞতা আনতে চাচ্ছে, অথবা কেনোইবা কেরিয়ার মধ্যে একটি ‘ছোট্ট চীন’ রাখতে হবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই চায়নাটাউনে থাকবে ঐতিহ্যবাহী চাইনিজ গার্ডেন, একটি হোটেল (যেখানে চীন থেকে আগত পর্যটকরা থাকতে পারবে)। লেগোল্যান্ড থিম পার্কের পাশেই এটি নির্মাণ করা হচ্ছে। যেন সহজেই পর্যটকরা অঞ্জলটিতে বেড়াতে আসতে পারেন।

পাকিস্তানের তুলনায় বাংলাদেশে নারীর মর্যাদা বেশি

অন্যদিকে, রাজনৈতিক পুনঃমিলনের লক্ষ্যে গত ৩ এপ্রিল চীন সফর করেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী। জীয়ামনে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে মিলিত হন তিনি। যা ২০১৭ সালের পর কেরিয়ার কোনো মন্ত্রীর প্রথম চীন সফর। সেই বৈঠকে সাংস্কৃতিক বিনিময়ের ব্যাপারেও আলোচনা হয়েছে।

যে ব্যক্তি পিটিশিন দায়ের করেছেন তিনি বলেন, যদিওবা চীন-কোরিয়ার মাঝে বিনিময় ও সহযোগিতার সম্পর্ক গুরুত্বপূর্ণ হয়, তবুও সাংস্কৃতিক বিরোধের পর্যায়ে এটি (চায়নাটাউন) পরে।

পিটিশনের প্রতিক্রিয়ায় এক বিবৃতিতে গ্যাংওয়ন প্রদেশ প্রশাসন জানিয়েছে, কোরিয়া-চায়না সাংস্কৃতিক টাউন নির্মাণ কার্যক্রম চলমান থাকবে। চীনা নাগরিকদের সুবিধার জন্য নয়, বরং পর্যটক আকর্ষণ করার লক্ষ্যে এটি নির্মাণ করা হচ্ছে।

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »