যে কারণে ২০ বছর পর ক্ষমা চাইলেন রোনালদো

২০০২ বিশ্বকাপে অদ্ভুতুড়ে চুলের ছাঁট দিতেন ব্রাজিলীয় কিংবদন্তি স্ট্রাইকার রোনালদো। সেবার সেলেকাওদের বিশ্বজয়ের নায়ক ছিলেন তিনি। জার্মানির বিপক্ষে ফাইনালের আগে চুলের ওই অদ্ভুত ছাঁট দেন রোনালদো।

সে সময়ের রোনালদোভক্ত কোমলমতি শিশুদের সেই চুলের ছাট ভীষণভাবে প্রভাবিত করেছিল। বিশেষকরে খুদে শিক্ষার্থীরা রোনালদোর অনুকরণে নিজেদের হেয়ার স্টাইল বদলে ফেলত।

নরসুন্দরের দোকানে ভিড় জমাতো। ব্রাজিলের পাড়ায়-মহল্লায় রোনালদোর মত চুলের ছাট দিতে একরকম হুলস্থূল পড়ে যায়।

২০ বছর পরে নিজের সেই অদ্ভুতুড়ে চুলের ছাঁটের জন্য ‘সব মায়ের’ কাছে ক্ষমা চাইলেন রোনালদো।

রোনালদো বললেন, ওই হেয়ার স্টাইলে আমাকে একদমই ভালো দেখায়নি। আমি সেসব মায়ের কাছে ক্ষমা চাইছি যাদের ছেলে আমার মতো সেই চুলের ছাঁট করিয়েছিল। যা দেখতে ভয়াবহ কুৎসিত ছিল।

অবশ্য রোনালদোর সেই হেয়ার স্টাইলটিও ছিল অদ্ভুত ও হাস্যকর। কপালের উপরটা জুড়ে চুল রেখে মাথার বাকিটুকু ন্যাড়া করেছিলেন তিনি। সেই ছাঁট নজর কেড়েছিল সবার।

মেলবোর্নে এক অনুষ্ঠানে ২০১৮ সালে এ ব্যাপারে তিন বারের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার জানিয়েছিলেন, তার পায়ের চোট নিয়ে সংবাদ মাধ্যমের নজর সরাতে ইচ্ছা করে পরিবর্তন এনেছিলেন চুলের ছাঁটে।

রোনালদো বলেছিলেন, আমি পায়ে একটা চোট পেয়েছিলাম এবং সবাই এটা নিয়ে কথা বলছিল। আমি আমার চুল কাটার সিদ্ধান্ত নেই। আমি অনুশীলনে আসি এবং সবাই আমাকে চুলের এই বাজে অবস্থা দেখে। সবাই চুল নিয়ে কথা বলছিল এবং চোটের ব্যাপারটা ভুলে গিয়েছিল। আমি আরও শান্ত ও চাপমুক্ত থাকতে পারলাম। আমি আমার অনুশীলনে নজর দিলাম।

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »