পোশাকশ্রমিকরা বছরে গ্রামে পাঠায় ১২ হাজার ১৩২ কোটি টাকা

 

তৈরি পোশাক খাতের শ্রমিকরা গ্রামে তাদের পরিবারের সদস্যদের কাছে প্রতি মাসে ১ হাজার ১১ কোটি টাকা পাঠান। এক বছরে এর পরিমাণ ১২ হাজার ১৩২ কোটি টাকা। এটি শ্রমিকদের মোট আয়ের প্রায় ১০ শতাংশ। এশিয়ান সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্টের (এসিডি) এক জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। জরিপে বলা হয়, তৈরি পোশাক খাতের প্রায় ৬২ শতাংশ শ্রমিকই গ্রামে তাদের পরিবারের কাছে টাকা পাঠান, যার পরিমাণ শ্রমিকপ্রতি ৩ হাজার ৮৬৯ টাকা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ছয় বছরে এ খাতের শ্রমিকদের গড় আয় বেড়েছে ৬৭ শতাংশ। ২০১৪ সালে একজন শ্রমিকের গড় আয় ছিল ৬ হাজার ৮২০ টাকা আর ২০২০ সালে তা বেড়ে দাঁঁড়িয়েছে ১১ হাজার ৪০২ টাকা।

গত বছরের তথ্য-উপাত্তের ওপর ভিত্তি করে এ জরিপ প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। ঢাকা ও চট্টগ্রামের ১৬০টি পোশাক কারখানার ১ হাজার ১১৯ জন শ্রমিকের ওপর এ জরিপ চালানো হয়। গতকাল শনিবার এক অনলাইন সেমিনারে (ওয়েবিনার) জরিপ প্রতিবেদন তুলে ধরা হয়। জরিপের বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন জরিপকারী দলের প্রধান ড. এ কে এনামুল হক। এ সময় তৈরি পোশাক শিল্পোদ্যোক্তা, অর্থনীতিবিদ ও সরকারের প্রতিনিধিরা প্রতিবেদনের ওপর তাদের মতামত তুলে ধরেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এ খাতে কারখানার সংখ্যা কমলেও শ্রমিক সংখ্যা সে হারে কমেনি। বরং অনেক কারখানা আকারে বড় হয়েছে। বর্তমানে এ খাতের শ্রমিক সংখ্যা ৪২ লাখ ২০ হাজার। তবে ধীরে ধীরে কমছে নারী শ্রমিকের হার। পাঁচ বছর আগে এ হার ৬৫ শতাংশ হলেও এখন তা নেমে এসেছে ৫৯ শতাংশে। এর কারণ হিসেবে অনেক কারখানা ওভেন থেকে নিটে পরিবর্তন হওয়া এবং কারখানায় প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়ে যাওয়াকে দায়ী করা হয়েছে। অবশ্য এ খাতে শ্রমিকের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আলোচকরা। অন্যদিকে ২৪২টি কারখানার তথ্য নেওয়ার জন্য জরিপকারী দল চেষ্টা চালালেও এর মধ্যে ৮২টি কারখানা তথ্য নিতে অনুমতি দেয়নি। ফলে জরিপটি কতটুকু বিশ্বাসযোগ্য, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন আলোচকের কেউ কেউ।

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »