ঘাড়ের সঙ্গে ভেঙে গিয়েছিল ইয়ামির স্বপ্নও

জীবন মানেই চড়াই–উতরাই। বলিউড অভিনেত্রী ইয়ামি গৌতমের বেলায়ও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। একসময় তাঁর জীবনে নেমে এসেছিল চরম বিপর্যয়। বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের সেসব দিনের কথা মনে করে আজও শিউরে ওঠেন ইয়ামি।

২০২০ সালের আগস্টে ইয়ামি নিজের এক দুর্ঘটনার কথা শেয়ার করেছিলেন ইনস্টাগ্রামে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ইয়ামি সেই দুর্ঘটনার বিষয়ে আরও খোলাসা করেছেন। এই বলিউড তারকা বলেন, ‘আমি তখন চণ্ডীগড়ে পড়াশুনা করি। নিজের মোটরসাইকেলে হাইওয়ে পার হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছিলাম। হঠাৎ একটি গাড়ি এসে আমাকে ধাক্কা দেয়। আমি রাস্তায় পড়ে যাই। হেলমেট থাকার জন্য আমার মাথাটা রক্ষা পায়। গাড়িটা আমাকে ধাক্কা দিয়েই পালিয়ে যায়। এক ব্যক্তি এসে আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। তিনি সাহায্য না করলে অন্য কোনো গাড়ি এসে আমাকে পিষে দিত। কারণ, আমার নিজে ওঠার মতো অবস্থা ছিল না।

ভিকি ডোনার, বদলাপুর ছবির এই অভিনেত্রী আরও জানান, সে সময় তিনি আইএএসের (ইন্ডিয়ান অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস) প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। সেই দুর্ঘটনায় তিনি মারাত্মক শারীরিক আঘাত পান। ঘাড়ের হাড় ভেঙে গিয়েছিল। দুর্ঘটনাটি তাঁর স্বপ্ন চুরমার করে দেয়। শারীরিক ফিটনেসের পরীক্ষায় বাদ পড়েন তিনি। আজও ওই দুর্ঘটনার যন্ত্রণা ইয়ামিকে তাড়া করে। তিনি বলেন, ‘আজও মাঝেমধ্যে আমার ঘাড়ে ব্যথা করে। লকডাউনে আমি যোগব্যায়াম শুরু করি।’ ইয়ামি মনে করেন, নিজের জীবনের দুর্বল দিক নিয়ে কথা বলা জরুরি। তাতে নিজেও শক্তিশালী আর হালকা হওয়া যায়। আর অন্যকেও শক্তি দেওয়া যায়।

ইয়ামি গৌতমকে শেষ দেখা গেছে গিনি ওয়েডস সানি ছবিতে। ছবিটি নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেয়েছিল। শিগগিরই তাঁকে ভূত পুলিশ ছবিতে দেখা যাবে। এ ছাড়া অভিষেক বচ্চনের সঙ্গে দশবি ছবিতে অভিনয় করবেন ইয়ামি।

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »