ঈশ্বরদী পৌরসভা: প্রচারণায় মাঠে নারী প্রার্থীরা

১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য ঈশ্বরদী পৌরসভার নির্বাচনে প্রচারণায় পিছিয়ে নেই নারী প্রার্থীরা। ঈশ্বরদীতে এবার আট নারী প্রার্থী পৌরসভার কাউন্সিলর পদে ভোটযুদ্ধে মাঠে নেমেছেন। এর মধ্যে সংরক্ষিত ওয়ার্ডে সাত ও সাধারণ ওয়ার্ডে একজন নারী।

শেষপর্যায়ের প্রচারণায় নারী প্রার্থীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। তারা কোনোভাবেই পিছিয়ে নেই পুরুষ প্রার্থীদের তুলনায়। সমর্থকদের সঙ্গে নিয়ে তারা শহরের পাড়া-মহল্লায় ঘুরছেন, বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছেন নিজেদের মার্কা। ভোটারদের দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি।

উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে– সংরক্ষিত ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে জেসমিন জাহান ও ফরিদা ইয়াসমিন; ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডে শামীমা আক্তার, রহিমা খাতুন এবং ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের জুবাইদা নাসরিন, শাহানাজ বেগম ও ফিরোজা বেগম।

এ ছাড়া ৫নং ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে একমাত্র নারী হিসেবে প্রার্থী হয়েছেন শাহানাজ পারভীন। তিনি পুরুষের সঙ্গে সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সংরক্ষিত ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ড প্রার্থী ফরিদা ইয়াসমিন জানান, সকাল ৬টায় বের হয়ে রাত ৯টায় তিনি বাড়ি ফেরেন। এলাকাবাসীর উন্নয়নে গেল পাঁচ বছর ধরে কাজ করেছেন তিনি।

জেসমিন জাহান জানান, তিনি নারীর শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, নারী নির্যাতনের বিষয়গুলো প্রচারণায় রেখে ভোট প্রার্থনা করছেন।

৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী শামীমা আক্তার বলেন, নির্বাচনী এলাকায় ছোট ছোট সভার মাধ্যমে তিনি ভোট প্রচারণা করছেন।

এ ওয়ার্ডের আরেক প্রার্থী রহিমা খাতুন জানান, দীর্ঘদিন ধরে আমি জনগণের সঙ্গে আছি। করোনার সময়েও এলাকার মানুষের সুখে-দুঃখে তাদের পাশে থেকে উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। আমি নির্বাচিত হলে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে এলাকার উন্নয়নে কাজ করব।

নারী ভোটার শাহানা পারভিন জানান, প্রার্থী যেই হোক না কেন- সৎ, যোগ্য ও মানুষের জন্য যে কাজ করবেন এমন নারী প্রার্থীকেই তারা ভোট দেবেন।

এ বিষয়ে নারী উন্নয়ন কেন্দ্রের পরিচালক নাসরিন আক্তার শেলী বলেন, নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। সরকারি-বেসরকারিসহ তৃণমূল পর্যন্ত সর্বক্ষেত্রে এখন নারীর উপস্থিতি দৃশ্যমান। বাংলাদেশে সর্বক্ষেত্রে পুরুষের পাশাপাশি নারীরা এখন এগিয়ে যাচ্ছে।

ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা পিএম ইমরুল কায়েস জানান, ১৬ জানুয়ারি এই পৌরসভার ভোট ব্যালট পেপারের মাধ্যমে হবে। পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ৫৫ হাজার ৫৬৮ জন।

এর মধ্যে পুরুষ ২৭ হাজার ২৪১ এবং নারী ভোটার ২৮ হাজার ৩২৭ জন। প্রস্তাবিত ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ১৯ ও বুথ ১৫২টি। তিনি বলেন, এখানকার নারী প্রার্থীরাও বেশ সরব।

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »