৮ দিন পর শিশু তাইবাকে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিল পুলিশ

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চুরি যাওয়া দুই মাসের কন্যাশিশু তাইবাকে আট দিন পর উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১১ টায় থানা চত্বরে প্রেস ব্রিফিংয়ে তথ্যটি নিশ্চিত করেন নাটোর জেলা পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা।

প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার জানান, পার্শ্ববর্তী বড়াইগ্রাম উপজেলার তিরাইল গ্রামের ট্রাক চলক সাইদুলের স্ত্রী শাকিলা গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ওই শিশুটি চুরি করেন। হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ থেকে পাওয়া তথ্য এবং আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে পুলিশ, ডিএসবি, ডিবি এবং পুলিশের স্পেশাল টীমের সমন্বয়ে ৭ দিন ব্যাপী পাবনা, সিরাজগঞ্জ এবং নাটোর জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়। একপর্যায়ে বুধবার গভীর রাতে পুলিশ বড়াইগ্রাম উপজেলার কালিকাপুর এলাকা থেকে শাকিলাকে গ্রেফতার করে। এসময় শিশু তাইবাকে উদ্ধার করে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেয় পুলিশ।

অভিযুক্ত শাকিলার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন শিশু তাইবার মা শিমা বেগম ও বাবা তফিজ উদ্দিন।

শাকিলা বলেন, ট্রাক চালক সাইদুল তার দ্বিতীয় স্বামী। মাস দুয়েক আগে তারও একটি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। সেসময় স্বামী তাকে ভরণপোষণ না দেওয়ায় অভাবী শাকিলা নি:সন্তান একটি এনজিও পরিবারে শিশুটিকে দত্তক দেন। কিছুদিন পরে স্বামী সাইদুল দত্তক দেওয়া সন্তানকে ফিরে পেতে তার ওপর নির্যাতন শুরু করতে থাকে। একারণে তিনি যেকোনভাবেই একটি শিশু সংগ্রহের সিদ্ধান্ত নেন। তারই প্রেক্ষিতে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে কৌশলে শিশু তাইবাকে চুরি করেন

গুরুদাসপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, উপজেলার মশিন্দা মাঝপাড়া গ্রামের তফিজ উদ্দিনের স্ত্রী শিমা বেগমের ২ মাসের শিশু তাইবা ২৩ ডিসেম্বর হাসপাতাল থেকে চুরি হয়। এঘটনায় শিশুটির বাবা তফিজ উদ্দিন থানায় মামলা দায়ের করলে তারা ৮ দিন পর ৩০ ডিসেম্বর বুধবার রাতে শিশুটিকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। অভিযুক্ত শাকিলাকে বৃহস্পতিবার নাটোর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »