দুই স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নিয়ে অরুণা বিশ্বাস

দুটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নিয়ে আসছেন প্রখ্যাত অভিনেত্রী-নির্মাতা অরুণা বিশ্বাস। মুজিব বর্ষ উপলক্ষে সরকারি অনুদানের এই দুটি চলচ্চিত্রের রচনা ও পরিচালনা করছেন তিনি নিজেই। বর্তমানে ঢাকার বেশ ক’টি লোকেশনে এর শুটিং চলছে।

এর ভেতরে মুজিব শতবর্ষের চলচ্চিত্র ‘এক আজলা আগুন’-এ অভিনয় করেছেন দিলারা জামান, অরুণা বিশ্বাস, পীরজাদা শহীদুল হারুন, রিমু রোজা খন্দকার ও এস আই শহীদসহ অনেকে।

আরেক স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ঠিকানা বত্রিশ নম্বর’-এ অভিনয় করেছেন অরুণা বিশ্বাস, শহীদুল আলম সাচ্চু, জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, আশনা হাবিব ভাবনা প্রমুখ।

দেশমাতৃকা, বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতা সংগ্রামকে কেন্দ্র করে এই চলচ্চিত্র দুটি গত ২ বছর ধরে স্ক্রিপ্ট করেছেন নির্মাতা অরুণা বিশ্বাস। উল্লেখ্য, কিংবদন্তী সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অমলেন্দু বিশ্বাসের কন্যা অরুণা বিশ্বাস গত ৩ দশক ধরে টিভি ও চলচ্চিত্রে নিয়মিত কাজ করছেন। তার সমসাময়িক অনেকেই অভিনয় থেকে অবসর বা ছিটকে পড়লেও ভীষণ নিষ্ঠার সাথে কাজটি করছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে অরুণা বিশ্বাস বলেন, ‘আমার জীবনের প্রতিটি নির্মাণেই এক ধরনের সামাজিক মেসেজ দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আর এই দুটি কাজ যেহেতু জাতির পিতাকে নিয়ে। তাই গত ২ বছর আমি স্টাডি করেছি এই দুটি প্লট তৈরি করার জন্য। গল্পটা এখনই আমি বলতে চাই না। সেটা রিলিজের পরেই দর্শকরা দেখবেন। কিন্তু এক ভিন্ন কোণ থেকে আমি বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতাকে উপস্থাপন করেছি। স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিতে শুধু ব্যাপ্তিটাই কম থাকে। বাকি গল্প ভাবনা, আয়োজন ও নির্মাণের পরিশ্রম কিন্তু এক। আমি খুব বেছে বেছে চরিত্রগুলো নিয়েছি এবং আমার প্রত্যেক শিল্পী স্ব-স্ব জায়গায় প্রতিষ্ঠিত ও পরিক্ষীত। নিজের ছবি বলে কোনো আত্মীয়করণ করে আমি নির্মাণের মান নষ্ট করতে চাইনি, যা এখন হরহামেশায়ই হচ্ছে।’

 

অরুণা বিশ্বাসের এই চলচ্চিত্র প্রসঙ্গে তার অভিনেতা একাধিকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পী শহীদুল আলম সাচ্চু বলেন, ‘অরুণা বিশ্বাস এদেশের নিখুঁত এক নির্মাতা। আমি তো এক জীবনে অনেকের সঙ্গেই কাজ করেছি। কিন্তু অরুণা বিশ্বাস ফ্রেম টু ফ্রেম ছবির কাজ মেপে তবেই সেটে আসেন এবং ক্যামেরা অ্যাকশনে যান। যারা প্রকৃত অর্থেই সিনেমা নির্মাণটা বোঝেন। তাদের পক্ষেই এভাবে নির্মাণ সম্ভব। দারুণ একটা কাজ হবে বলে আমার বিশ্বাস।’

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »