তাইওয়ানের কাছে ১৮০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

তাইওয়ানের কাছে ১৮০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রি অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এই অনুমোদন দিয়েছে। মার্কিন সরকারের এমন পদক্ষেপের ফলে চীনের সঙ্গে উত্তেজনা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এক বিবৃতিতে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, তাইওয়ানকে বিভিন্ন ধরণের ১৩৫টি অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র বিক্রি করতে সম্মতি জানিয়েছে সরকার। সেইসঙ্গে ভারী ও হালকা রকেট লঞ্চারও বিক্রি করা হবে। এসব সরঞ্জামের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার (১৫ হাজার ২৮০ কোটি টাকার বেশি)।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, তাইওয়ানকে আমরা সর্বাধুনিক স্ল্যাম-ইআর ক্ষেপণাস্ত্রটি বিক্রি করছি। এটি যেকোনো আবহাওয়া, দিন কিংবা রাতে উৎক্ষেপণ করা সম্ভব। এছাড়া এই ক্ষেপণাস্ত্র স্থির ও গতিশীল যেকোনো লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম। যা তাইওয়ানকে বর্তমান ও ভবিষ্যতের হুমকি মোকাবেলা করতে সাহায্য করবে।

ক্ষেপণাস্ত্র ক্রয় প্রসঙ্গে তাইওয়ানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, এসব ক্ষেপণাস্ত্র বিশ্বাসযোগ্য যুদ্ধক্ষেত্রের ক্ষমতা এবং অসামান্য যুদ্ধের বিকাশকে শক্তিশালী করবে।

 

আল আরাবিয়া বলছে, বুধবার মার্কিন সরকার ক্ষেপণাস্ত্র বিক্রির ঘোষণা দিলেও কোনো ড্রোন বিক্রির কথা জানায়নি। কিন্তু তাইওয়ান অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র কেনার যে তালিকা প্রদান করেছিল সেখানে এমকিউ৯ কমব্যাট ড্রোনের কথা উল্লেখ ছিলো।

 

চীনের সঙ্গে তাইওয়ানের দীর্ঘদিনের বিরোধিতা চলমান। তাইওয়ান নিজেদের স্বাধীন দাবী করলেও, চীনা সরকার বলছে এটি তাদের অধ্যুষিত এলাকা। বর্তমানে তাইওয়ানে একটি সরকার চলমান থাকলেও শিগগির তা চীনা সরকারের আওতায় চলে যাবে বলে দাবী করছে চীন। সেই লক্ষ্যে তাইপেতে সেনা উপস্থিতি বাড়াচ্ছে চীন। অন্যদিকে সেখানকার সরকারকে অস্ত্র ও অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র সরবরাহ করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র।

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »