কর্মকর্তাদের বিদেশ প্রশিক্ষণে অস্থায়ীদের না পাঠানোর সুপারিশ

বিদেশে প্রশিক্ষণ প্রাপ্তদের অর্জিত জ্ঞান মন্ত্রণালয়ের কাজে লাগাতে ভবিষ্যতে কোনো অস্থায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিদেশ না পাঠানোর সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। একইসঙ্গে দুর্নীতির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নে মন্ত্রণালয়কে সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপের সুপারিশ করা হয়।

বৃহস্পতিবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ১১তম বৈঠকে এসব সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি ধীরেন্দ্র্র দেবনাথ শম্ভু। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম, মো. মাহবুব-উল-আলম হানিফ, ছোট মনির, নাজমা আকতার ও কানিজ ফাতেমা আহমেদ  বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি ধীরেন্দ্র্র দেবনাথ শম্ভু সাংবাদিকদের বলেন, মন্ত্রণালয়ের অস্থায়ী ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিদেশে প্রশিক্ষণ প্রদান করলে সেই প্রশিক্ষণ প্রাপ্তদের অর্জিত জ্ঞান থেকে মন্ত্রণালয় খুব বেশি লাভবান হয় না। তাই প্রশিক্ষণে অর্জিত জ্ঞান থেকে সর্বোচ্চ সুফল পেতে মন্ত্রণালয়ের অস্থায়ী ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের পরিবর্তে মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কর্মকর্তা, কর্মচারীদেরকে প্রয়োজনে বিদেশ প্রশিক্ষণে পাঠানোর সুপারিশ করা হয়।

 

সংসদের গণসংযোগ বিভাগ জানায়, বৈঠকে ‘সামুদ্রিক মৎস্য বিল, ২০২০’ এবং  ‘মৎস্য ও মৎস্যপণ্য (পরিদর্শন ও মান নিয়ন্ত্রণ) বিল, ২০২০’ প্রয়োজনীয় যাচাই বাছাই, পরিবর্তন, পরিমার্জন পূর্বক চূড়ান্ত প্রতিবেদন সংসদে উত্থাপনের জন্য সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালায়ের সচিব, বিভিন্ন সংস্থার প্রধানসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »