‘কালু’ বলে ডেকেছিলেন ইশান্ত শর্মা! এখনও রেগে আছেন স্যামি?

ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুইবারের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি বর্ণবাদ  নিয়ে বরাবরই সোচ্চার। প্রকাশ্যে প্রতিবাদের পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দাবি করেছেন। চার মাস আগে তিনি আইপিএলে বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ তুলেছিলেন। ক্রিকেট বিশ্ব তোলপাড় হয়েছিল তাঁর সেই অভিযোগে। অনেকেই জানিয়েছিলেন, তাঁরাও কোথাও না কোথাও বর্ণবৈষম্যের শিকার হয়েছেন।

আইপিএলে কৃষ্ণাঙ্গ ক্রিকেটারদের সম্মান নিয়েও প্রশ্ন উঠেছিল স্যামির ওই অভিযোগের পর। আমেরিকায় কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড হত্যার পরই গর্জে উঠেছিল গোটা বিশ্ব। সারা বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা কৃষ্ণাঙ্গরা তাঁদের বিরুদ্ধে হওয়ার অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছেন।

স্যামি অভিযোগ করেছিলেন, আইপিএলে হায়দরাবাদ ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে খেলার সময় সতীর্থদের কেউ তাঁকে কালু বলে ডাকতেন। তখন তিনি এই নামের মানে বুঝতে পারেননি। কারণ তখন তিনি ভাবতেন যে সতীর্থরা তাঁকে ভালবেসে ওই নামে ডাকছে। কিন্তু স্যামি পরে জানতে পারেন যে সতীর্থরা তাঁর গায়ের রঙের জন্য তাঁকা ওই নামে ডাকতেন। পরে জানা যায়, ভারতীয় পেসার ইশান্ত শর্মাই তাঁকে কালু বলে ডাকতেন। এই নিয়ে ক্রিকেটমহলে অনেকেই প্রতিবাদ করেছিলেন। ইনস্টাগ্রাম পোস্ট করে স্যামি দাবি করেছিলেন, তাঁকে কালু বলে ডাকা হত। পরে তিনি কালু নামের মানে জানতে পেরে হতাশ হন। তবে স্যামি এবার জানিয়েছেন, ইশান্তের উপর তাঁর আর কোনও রাগ নেই।

স্যামি বলেছেন, ”আমার ইশান্তের প্রতি কোনও ক্ষোভ নেই। ও আমার কাছে আগেও ভাইয়ের মতো ছিল। এখনও তাই। তবে হ্যাঁ, ভবিষ্যতে কোনওরকম বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্যের মুখে পড়লে আমি আবার প্রতিবাদ করব। আমাকে ওই নামে ডাকা হলে আমি আবার প্রশ্ন তুলব। আমি প্রশ্ন করেছিলাম বলেই ক্রিকেটাররা অনেকে প্রতিবাদের রাস্তা পেয়েছিল। তাই প্রতিবাদ করায় আমার কোনও লজ্জা নেই। বছরের পর বছর ধরে শুধুমাত্র গায়ের রঙের জন্য কৃষ্ণাঙ্গদের অপমান করা হচ্ছে। এই জঘন্য প্রথা শেষ হওয়া দরকার। আমরা প্রতিবাদ না করলে এই প্রথার শেষ হবে না। কিছু মানুষকে বোঝানো যাবে না যে গায়ের রঙের জন্য কাউকে অপমান করা বৈষম্যমূলক আচরণ করাটা ভুল।”

Rupantor Television

A IP Television Channel

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »